সেরা কিশোর থ্রিলার বইয়ের রিভিউ

ফ্ল্যাপ থেকেঃ 

"চোখ খোলা থাকলেই সব দেখা যায় না। ঠিক দেখলে, কথা বলবে উল্টো পিঠ। কোথাও ভেঙে পড়ছে সিঁড়ি, দুপুর পুড়ছে-- অথচ মানুষেরা চুপচাপ প্রতিবাদের নাম-গন্ধ নেই। একদল কিশোর এ নিয়ে ভাবে। তারা চায় অন্যায়ের প্রতিবাদ হোক।

এদিকে শকুনের উঁকি মনে আতংক তৈরি করছে। কারা ওই শকুন? খেলার মাঠ হাপিস করতে আসে কোন প্রলোভন দেখিয়ে? শেষপর্যন্ত তারা ক্ষমতা ও বিত্তের জন্য মানুষও খুন করতে পারে?

অনি ও তার বন্ধুরা ভাবে, শকুনদের থামাতে হবে। শুরু হলো লড়াই।"

রিভিউ: 

উপন্যাস শুরু করার পর অনিকে প্রধান ও অন্যতম চরিত্র ভাবলেও তার পাশাপাশি আবুল চরিএটা যথেষ্ট ভালো ব্যাখা করতে পেরেছেন লেখক। এছাড়াও বাকি আরো কয়েকটি চরিত্র উল্লেখ আছে বইটিতে; কিবরিয়া ভাই ,রাকিব ভাই, আনন্দ ও আবুলের বাবা(মোবারক মাস্টার)।


মূলত বইয়ের সম্পূর্ণ ঘটনা একটি মাঠ কেন্দ্রিক। পুরো বইটি জুড়ে কিছু সাহসী মানুষের লড়াই দেখা গেছে। ঘটনা মাঠেই শুরু মাঠেই শেষ। মাঠ রক্ষায় ব্যাপারীর বিপক্ষে লড়াই করার মতো কেউ ছিল না। বেপারী কল্পনাও করতে পারেনি তার বিপক্ষে কোনো আন্দোলন হতে পারে। সেখান থেকে তরুণ ছেলেদের উদ্যোগে হাত মেলান আবুলের বাবা। তখন থেকেই আবুলের বাবা এলাকার মানুষকে এক করার পাশাপাশি প্রশাসনিক কার্যে অনি-আবুলদের সাহায্য করছিল,যা তিনি সাহায্য না করলে কখনোই সম্ভব হতো না।পরিকল্পনা মতোই সবটা সামনে এগুচ্ছিল অনিদের। তবে হঠাৎ আবুলের বাবার রহস্যময় মৃত্যু এ যেন সবটা শেষের পথে। এখানেই কি গ্রামবাসীর এবং কিশোর দলের লড়াই শেষ!

কিন্তু তখনই উপন্যাসে ঘটল এক মোড় ঘুরানো ঘটনা। কিশোর দল তদের অঘোষিত নেতৃত্ব হারিয়ে প্রতিবাদী কন্ঠে ঘুরে দাঁড়ালো। আবার নতুন উদ্যমে শুরু হলো মাঠ রক্ষার লড়াই। কিবরিয়া ভাই এবং রাকিব ভাই সামনে থেকে দলটাকে নেতৃত্ব দিচ্ছে। ফন্টলাইনে আসার পরই কিবরিয়া ভাইকে বেপারী গ্রেফতার করিয়ে ফেলে তার পোষা পুলিশ দিয়ে। রাকিব ভাইয়ের উপরও বেপারির নজর তীব্র হয়, তখন তিনিও চোখের আড়ালে চলে যেতে বাধ্য হয়।  

সিনিয়র-রা থেমে যাওয়া পর সবটা দায়িত্ব অনি-আবুল-আনন্দদের মতো কিশোরদের কাঁধে। এই ভয়ডরহীন কিশোরদের দিন-রাত পরিশ্রম করে গড়ে তোলা আন্দোলন আর লড়াইয়ের ফলে মাঠ রক্ষা হলেও এই লড়াইয়ে ঝড়ে যায় একটি নিষ্পাপ প্রাণ, সেটা -আবুলের। আবুলের মৃত্যু হয় মাথায় বেপারির লোকের আঘাতে।

কিছু কথা: কিশোর থ্রিলার ক্যাটাগরির খুব বেশি বই এখন দেখতে পাওয়া যায় না। বেশিরভাগ বই থ্রিলার উপন্যাস হয় আর নয়তো সামাজিক। সে জায়গা থেকে লেখকের কিশোর থ্রিলার নিয়ে লেখার চিন্তা করাটা আমার ভালো লেগেছে। কতদিন তিনি এই কিশোর থ্রিলার নিয়ে কাজ করতে পারেন এটাই দেখার নিষয়।

প্রিয় উক্তি: 

"মানুষের কাছে দৃশ্যমান এবং উপলব্ধিযোগ্য প্রতিটি বিষয়ে অঢেল জ্ঞান থাকলেও মৃত্যু-মৃত্যুজগৎ রয়ে গেছে ঘন কুয়াশাময়, রহস্যে আচ্ছন্ন" 

"মা হলো সব কিছুর উর্ধ্বে।মা কেন বন্ধু হতে যাবে? মা কেন অন্যদের সাথে প্রতিযোগিতায় যাবে? মা-ইতো নিজের অস্তিত্ব।"

পাঠ প্রতিক্রিয়া : জাকির হোসেনের "সেই ছেলেটি" বইয়ের তুলনায় এই বইটা আমি বলবো একটা মাস্টারপিস। এসব কিশোর থ্রিলার বই নিয়ে আমার আলাদা করে কিছু বলার নাই। এসব বই অবশ্যপাঠ্য বই।

বইটা আমি মন্ত্রমুগ্ধের মত পড়ে গেছি।বইয়ের প্রত্যেকটা পরতে পরতে মিশে ছিলো একরাশ মুগ্ধতা আর ভালোলাগা।আমার মত মুগ্ধতায় ডুবে যেতে চাইলে আপনারাও(যারা পড়েননি)পড়ে ফেলুন বইটা।


বইয়ের নাম: অনিদের লড়াই 

লেখক : জাকির হোসেন 

মুদ্রিত মূল্য: ২০০

প্রকাশনী: চন্দ্রবিন্দু

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ